আরবি নববর্ষ ১৪৪১ হিজরী উপলক্ষে বাংলাদেশ ছাত্র হিযবুল্লাহ গজল সন্ধ্যা

0
459
শেয়ার করুন

পবিত্র ঈদুল আযহার ঈদ পুনর্মিলনী ও আরবি নববর্ষ ১৪৪১হিজরী উদযাপন।

বাংলাদেশ ছাত্র হিযবুল্লাহ কেন্দ্রীয় শাখা (ছারছীনা মাদ্রাসা শাখা) এর উদ্যোগে পবিত্র ঈদুল আযহার ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠান ও আরবি নববর্ষ ১৪৪১ হিজরী উদযাপন।

পহেলা সেপ্টেম্বর রবিবার বাদ এশা পবিত্র ঈদুল আযহার ঈদ পুনর্মিলনী ও আরবী নববর্ষ ১৪৪১ হিজরী উদযাপন উপলক্ষ্যে গজল জলসা অনুষ্ঠিত হয় উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন ছারছীনা দারুসুন্নাত কামিল মাদরাসার সম্মানিত মুফাস্সির জনাব আলহাজ্ব হযরত মাওলানা আ জ ম অহিদুল আলম সাহেব। উক্ত অনুষ্ঠান ছারছীনা শরীফের আলা হযরত পীর সাহেব হুজুর কেবলার ছোট সাহেব জাদা জনাব আলহাজ্ব হযরত মাওলানা মুফতি শাহ আবু বকর মুহাম্মাদ ছালেহ্ নেছার উল্লাহ সাহেব এর দিকনির্দেশনায় উক্ত অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।
উক্ত অনুষ্ঠান পবিত্র কালামুল্লাহ শরীফ থেকে তেলাওয়াত,হামদে বারি তায়ালা, নাতে রাসুল (সা:)দীনিয়ার সংগীত, হিজবুল্লাহ সংগীত, এর মাধ্যমে শুরু হয়।এরপরে আরবি সংগীত ইংরেজি সংগীত এর মাধ্যমে ও আরো কর্মসূচীর মাধ্যমে অনুষ্ঠান চলতে থাকে উক্ত অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ ছাত্র হিযবুল্লাহ কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি জনাব হযরত মাওলানা মুফতি আবু অক্কাস সাহেব, আরো উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ ছাত্র হিযবুল্লাহর কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি জনাব মাওলানা মুহিব্বুল্লাহ আল মাহমুদ সাহেব, উপস্থিত ছিলেন ছারছীনা দ্বীনিয়া মাদ্রাসার মুসায়িদ মুহাদ্দিস জনাব মাওলানা আ জ ম ওবায়দুল্লাহ সহেব,উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ ছাত্র হিযবুল্লাহ কেন্দ্রীয় সেক্রেটারি জেনারেল জনাব হযরত মাওলানা মুফতি বাহাউদ্দীন মুস্তাফি উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক জনাব মাওলানা মুফতি আবু নাইম নাছরুল্লাহ সাহেব। উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ ছাত্র হিযবুল্লাহ কেন্দ্রীয় প্রচার সম্পাদক জনাব মাওলানা নূরই রাইয়ান সাহেব উপস্থিত ছিলেন জুলফিকার হামদ নাত গজল পরিবেশক দলের সাবেক সফল পরিচালক জনাব হযরত মাওলানা মুফতি আবদুল মুনিম খান সাহেব। উক্ত অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন ছারছীনা দারুসসুন্নাত কামিল মাদ্রাসা,ছারছীনা দীনিয়া মাদ্রাসা ও হাফিজি মাদ্রাসার সম্মানিত আসাতিযায়ে কেরাম ও ছারছীনা মাদ্রাসা শাখার বাংলাদেশ ছাএ হিযবুল্লাহর সকল নেতৃবৃন্দ। উক্ত অনুষ্ঠান আসাতিযায়ে কেরামেরদের আলোচনা ও তাদের দিক নির্দেশনা এবং প্রধান অতিথির আলোচনা ও দোয়া মোনাজাতের মাধ্যমে সমাপ্তি ঘোষনা করা হয়। অনুষ্ঠানে আসাতিযায়ে কেরামগণ তারা তাদের আলোচনায় বলেছেন ছাত্ররা কিভাবে সাহিত্য চর্চা করবে তারা কিভাবে দেশ-জাতির খেদমত করবে এবং সমগ্র দেশে বাংলাদেশ ছাত্র হিযবুল্লাহর দাওয়াত পৌঁছে দিবে সে বিষয়ে গুরুত্বপূর্ণ আলোচনা করেছেন।

1569total visits,113visits today